ট্যারা চোখ কি বড় হলেই ঠিক হয়ে যায়

ট্যারা চোখ কি বড় হলেই ঠিক হয়ে যায়

উন্নয়নশীল দেশে সাধারণ মানুষ এমনকি কিছুক্ষেত্রে ডাক্তাররা পর্যন- বলে থাকে, ‘ট্যারা চোখ নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই, বড় হলেই চোখ ঠিক হয়ে যাবে, ‘কিন\’ প্রায় সব ক্ষেত্রেই ট্যারা চোখ কিন\’ নিজে থেকে সোজা হয় না৷ এর চিকিত্‍সা ৫-৬ বছরের আগেই করালে ভালো৷ এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, শতকরা মাত্র ১০ জন বাচ্চাকে ৫-৬ বছর বয়সের মধ্যে ট্যারা চোখের চিকিত্‍সার জন্য ডাক্তারের কাছ নিয়ে যাওয়া হয়৷ ২০% আসে ৫-১০ বছরের মধ্যে, ৪০% আসে ১১-২০ বছরের মধ্যে৷ দৃষ্টিহানির ক্ষেত্রে বড় ট্যারা ও ছোট ট্যারার মধ্যে কোনও পার্থক্য নেই৷ খুব ছোট ট্যারা চোখেও মারাত্মক দৃষ্টিহানি হতে পারে৷ অনেক বাচ্চার কাছে জিনিস দেখার সময় চোখ সোজা থাকতে পারে, কিন\’ দূরে তাকালে ট্যারা হতে পারে এবং এর উল্টোটাও হতে পারে৷ আবার কিছু বাচ্চা যখন ক্লান- থাকে বা অসুখের কারণে দুর্বল থাকে তখন ট্যারা হতে পারে৷ অর্থাত্‍ চোখ সবসময় ট্যারা না থেকে মাঝে মাঝে হতে পারে৷ ছেলে বা মেয়ের বিয়ের বয়সের আগেই চোখ সোজা করিয়ে নিন৷ এমনকি বৃদ্ধ বয়সেও এর চিকিত্‍সা সম্ভব৷ তবে মনে রাখবেন যে কোনও বয়সে চোখ সোজা করা গেলেও ৫/৬ বছর বয়সের পর দৃষ্টিশক্তি পুরোপুরি ভালো করা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সম্ভব হয়ে ওঠে না৷ ট্যারা চোখের অপারেশন একেবারেই ঝুঁকিবিহীন, এতে চোখ নষ্ট হওয়ার বা দৃষ্টিশক্তি হারানোর কোনোই ভয় নেই৷ এ অপারেশনের জন্য সার্জনের অস্ত্র একেবারে চোখের ভেতর প্রবেশ করে না, চক্ষুগোলকের সম্পূর্ণ বাইরে থেকে এই অপারেশন করা হয়৷ চশমা, চোখের ব্যায়াম এবং অপারেশনের মাধ্যমে ট্যারার চিকিত্‍সা করা হয়৷
পরামর্শ : ডা. রশিদ হায়দার
চক্ষু বিশেষজ্ঞ, ডেল্টা মেডিকেল সেন্টার

One thought on “ট্যারা চোখ কি বড় হলেই ঠিক হয়ে যায়

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s