কাটল ফিশ: যে প্রাণীর তিনটি হৃত্‍পিন্ড

অদ্ভুত এক প্রাণী ‘কাটল ফিশ’ (ডর্লর্ফণ এধ্রদ)৷ এদের তিনটি আলাদা আলাদা হৃত্‍পিণ্ড থাকে৷ দুইটি হৃত্‍পিন্ড থাকে কানকোর গোড়ায়৷ এ দু’টির কাজ হলো সমসত্ম দূষিত রক্ত পাম্প করে কানকোয় নিয়ে যাওয়া৷ কানকোয় পেঁৗছে ঐ দূষিত রক্ত অক্সিজেন শোষণ করে৷ এরপর সেই রক্ত চলে যায় তৃতীয় হৃত্‍পিন্ডে৷ তৃতীয় বা কেন্দ্রীয় হৃত্‍পিন্ডটি সেখান থেকে রক্ত প্রাণীটির শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে সঞ্চালিত করে৷ মজার ব্যাপার হলো-এরা প্রকৃতপৰে মাছ নয়, এদের বলা হয় ‘মোলাসক’ বা শামুক জাতীয় প্রাণী৷

কাটল ফিশের রক্তের আলাদা বর্ণও বিশেষ আকর্ষণীয়৷ প্রায় সকল প্রাণীর রক্তে হিমোগেস্নাবিন থাকার কারণে তাদের রক্তের রং হয় লাল৷ এই হিমোগেস্নাবিনে থাকে ‘আয়রণ’ বা লৌহ৷ কিন্তু কাটল ফিশ কিংবা ঐ প্রজাতির জন্য প্রাণীদের রক্তে থাকে যৌগিক হিমোসায়ানিন’৷ এই হিমোসায়ানিনে থাকে ‘কপার’ যা ওদের রক্তকে নীল রং প্রদান করে৷

কোমল অঙ্গযুক্ত এক প্রাণী কাটল ফিশ৷ যে শ্রেণীগোষ্ঠীর প্রাণীর অনত্মভর্ুক্ত এরা তার নাম হলো ‘সেফালোপোডা’৷ এই শ্রেণীভুক্ত অন্য প্রাণীরা হলো ”অক্টোপাস’ ও ‘স্কুইড’৷ পৃথিবীর বেশিরভাগ সমুদ্রেই এদের দেখতে পাওয়া যায়৷ কাটল ফিশ সমুদ্র উপকূলের পানিতে প্রধানত বসবাস করে৷ এদের গায়ের রং তামাটে অথবা বাদামি রংয়ের ওপর ডোরাডোরা দাগ বা বেগুনি লাল রংয়ের বিন্দু বিন্দু ফোটা হয়ে তাকে৷ কাটল ফিশ বেশ উজ্জ্বলতার সাথে ঝকঝকে দেখায়৷ সূর্যের আলোয় এদের ধাতব পদার্থের মতো দেখায়৷ পশ্চাত্‍পটের সাথে মিলিয়ে এরা এদের রং বদল করে৷ এ পর্যনত্ম এ প্রজাতির প্রায় একশো প্রাণী নিয়ে পর্যবেৰণ করা হয়েছে৷ কাটল ফিশের দৈর্ঘ্য ৮ সেন্টিমিটার থেকে ১.৮ মিটার পর্যনত্ম হয়ে থাকে৷

কাটল ফিশের সমগ্র শরীর ‘ম্যান্টল’ নামের এক প্রকার বিশেষ থলি দিয়ে আবৃত থাকে৷ সামনের দিকে মাথা ও টেন্টাকল নামক সরম্ন ও নরম অঙ্গ ম্যান্টল থেকে বাইরে প্রসারিত হয়৷ বাইরের ধার ঘেঁষে থাকে দু’টি পাখনা৷ এদের মোট আটটি বাহু ও দু’টি টেন্টাকল৷ বিভিন্ন বস্তুর সাথে নিজেদের জড়াবার জন্য এবং খাদ্য সংগ্রহের নিমিত্তে এরা এদের বাহুগুলো ব্যবহার করে৷ শত্রম্নদের হাত থেকে নিজেদের রৰা করার জন্য কাটল ফিশের একটি অদ্ভুত উপায় আছে৷ এরা এক ধরনের কালো তরল বের করে যা ধোঁয়ার পর্দার মতো কাজ করে৷ কালি তৈরিতে ঐ কালো রঞ্জক ব্যবহৃত হয়৷ এরা ডিমও লুকিয়ে রাখে ঐ কালো তরলের মধ্যে৷

কাটল ফিশ সাধারণত বসনত্ম ও গ্রীষ্মকালে ডিম পাড়ে৷ এক একটি কাটল ফিশ প্রায় ১০০ থেকে ৩০০টি ডিম প্রসব করে৷ মানুষ এদের খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করে৷ এদের হাড় তোতা ও ক্যানারি নামের গায়ক পাখিরা খাদ্য হিসেবে খেয়ে থাকে৷

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.