‘ক’ শ্রেণির হলেও গণশৌচাগার নেই

‘ক’ শ্রেণির পৌরসভা মুন্সিগঞ্জ। তবে শহরের প্রাণকেন্দ্রে গণশৌচাগার নেই একটিও। এতে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় লোকজনকে। বাধ্য হয়ে অনেকে সড়কের পাশে মলমূত্র ত্যাগ করে। এতে নষ্ট হচ্ছে পৌর এলাকার পরিবেশ।

এলাকাবাসী ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, মুন্সিগঞ্জ পৌরসভা ১৯৯১ সালে ‘খ’ শ্রেণি থেকে ‘ক’ শ্রেণিতে উন্নীত হয়। এরপর ২৫ বছর গেলেও সেবার মানে তেমন কোনো উন্নতি হয়নি। বিশেষ করে, শহরের প্রাণকেন্দ্রে কোনো গণশৌচাগার না থাকায় বিপাকে পড়তে হয় লোকজনকে। ২০০৯ সালে পৌর এলাকার লঞ্চঘাট টার্মিনাল ঘেঁষে ও মুন্সিরহাট এলাকায় দুটি শৌচাগার নির্মাণ করা হয়। কিন্তু তা শহরের মধ্যভাগের দুই কিলোমিটার অংশে চলাচলকারী লোকজনের কোনো কাজে আসে না।

পৌরসভা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার মোট জনসংখ্যা প্রায় এক লাখ। এই বিশাল জনগোষ্ঠীর বড় একটি অংশ প্রতিদিন দাপ্তরিক কাজ বা কেনাকাটাসহ নানা প্রয়োজনে শহরে আসে। মলমূত্র ত্যাগের প্রয়োজন হলে তাদের অনেককেই বিপাকে পড়তে হয়। তাই শহরের পৌর ভবনের আশপাশে অন্তত দুটি গণশৌচাগার নির্মাণ জরুরি হয়ে পড়েছে।

স্থানীয় সাংস্কৃতিক কর্মী জাহাঙ্গীর আলম ঢালী বলেন, ‘শহরের মধ্যে একটাও গণশৌচাগার নেই। প্রয়োজন দেখা দিলে বেশির ভাগ মানুষই মসজিদের শৌচাগার বা আশপাশের খোলা জায়গায় মলমূত্র ত্যাগ করে। এটা আমাদের জন্য দুঃখজনক।’

পৌরসভার সাবেক নারী কাউন্সিলর হামিদা খাতুন বলেন, নারীদের জন্য সমস্যা আরও বেশি। মলমূত্র ত্যাগের জন্য অনেককে কাজ ফেলে বাড়িতে ফিরে যেতে হয়।
সাবেক ছাত্রনেতা মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ‘মুন্সিগঞ্জ “ক” শ্রেণির পৌরসভা। আর এই পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্রে একটি গণশৌচাগারও নেই। সভ্যতা বিনির্মাণে এটা বড় অন্তরায় বলে আমি মনে করি।’

জানতে চাইলে মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার সচিব মো. বজলুর রশীদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘শহরের প্রাণকেন্দ্রে একটা গণশৌচাগার জরুরি বলে আমরাও মনে করি। গুরুত্ব বিবেচনা করে আমরা শহরের কাঁচাবাজারের পাশে কয়েক বছর আগে শৌচাগার নির্মাণের উদ্যোগও নিই। তবে মামলা-সংক্রান্ত জটিলতার কারণে করতে পারিনি। পৌর ভবন বা আশপাশে জায়গা খুঁজছি। পেলে সেখানে শৌচাগার নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

প্রথম আলো

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s