উত্তরণ-এর ‘থ্যাংকস গিভিং পার্টি

রাহমান মনি: জাপান প্রবাসী বাংলাদেশিদের দ্বারা পরিচালিত অন্যতম সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘উত্তরণ বাংলাদেশ কালচারাল গ্রুপ, জাপান’ প্রতি বছরের মতো এবারও ‘থ্যাংকস গিভিং পার্টি’র আয়োজন করে হেমন্তের এক পড়ন্ত বিকেলে।

উত্তরণ-এর কলাকুশলী, পৃষ্ঠপোষক, বিজ্ঞাপনদাতা এবং শুভানুধ্যায়ীদের সৌজন্যে এই ধন্যবাদ জ্ঞাপন অনুষ্ঠানের আয়োজন। বছরব্যাপী উত্তরণ বিভিন্ন সময়ে যাদের কাছ থেকে বিভিন্ন সহযোগিতা পেয়ে থাকে, তাদের একত্রিত করে এক নৈশভোজের মাধ্যমে আলাপচারিতার মধ্য দিয়ে আরও নিবিড় সম্পর্ক গড়ার জন্য এই থ্যাংকস গিভিং পার্টির আয়োজন। সাধারণত বছরের শেষ ভাগে এই আয়োজনটি করে থাকে উত্তরণ।

২৭ নভেম্বর টোকিওর অদূরে সাইতামা প্রিফেকচারের সোকা সিটি সেজাকি কম্যুনিটি সেন্টারে আয়োজিত সান্ধ্যকালীন এই ধন্যবাদ জ্ঞাপন অনুষ্ঠানটি প্রবাসী নেতৃবৃন্দের মিলনমেলায় পরিণত হয়। শুভানুধ্যায়ীদের মধ্যে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়িক, রাজনৈতিক ও আঞ্চলিক সংগঠনসমূহের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও স্থানীয় প্রবাসী মিডিয়া এবং বাংলাদেশি মিডিয়ার জাপান প্রতিনিধিগণও আমন্ত্রিত হয়ে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়াও বাংলাদেশ দূতাবাসের ইকোনমিক মিনিস্টার ড. সাহিদা আকতারও অংশ নেন। রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা ব্যস্ততার কারণে উপস্থিত না হতে পারায় তিনি দূতাবাসের প্রতিনিধিত্ব করেন।

উত্তরণ লিডার মো. নাজিম উদ্দিন অতিথিদের স্বাগত ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। এ ছাড়াও ইকোনমিক মিনিস্টার (বাংলাদেশ দূতাবাস) সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন নিয়াজ আহমেদ জুয়েল।

উত্তরণ-এর থ্যাংকস গিভিং পার্টির ধারাবাহিকতা এবারও বজায় ছিল। আর তা হলো, উত্তরণ-এর প্রতিষ্ঠিত শিল্পীরা নিজেরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকেন। আর অ্যামেচার শিল্পীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে সিংহভাগই সংগীত পরিবেশন করেন। তাল, লয়-অন্তরার বালাই না থাকলেও বেসুরে গান উত্তরণ শিল্পীরাসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা উপভোগ করেন। এ ছাড়াও কৌতুক, আবৃত্তি এবং পুঁথিপাঠ ছিল বিশেষ আকর্ষণ। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যেই থেমে থেমে আমন্ত্রিত অতিথিদের কাছ থেকে মন্তব্য জানতে চাওয়া ছিল বিশেষ আকর্ষণ।

উত্তরণ-এর শিল্পীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থেকে বিরত থাকলেও দলীয় সংগীত পরিবেশন করে অনুষ্ঠানের সূচনালগ্নে। এ ছাড়াও অ্যামেচার শিল্পীদের সঙ্গে যন্ত্রে সহযোগিতা করেন যেরোম গোমেজ, পিনু এবং বাচ্চু দত্ত।

পর্দার আড়ালে থাকা একদল কলা-কুশলীর কর্মযজ্ঞের নেতৃত্ব দেন মো. ফজলুর রহমান রতন।

২৭ নভেম্বর ২০১৬ উত্তরণের থ্যাংকস গিভিং পার্টিটি ছিল সত্যিকার অর্থেই প্রবাসীদের জন্য এক আনন্দঘন পরিবেশে মিলনমেলা। তাই আমন্ত্রিত অতিথিদের পক্ষ থেকেও এমন একটি আনন্দঘন পরিবেশ আয়োজন করার জন্য উত্তরণের সকল সদস্যকে প্রাণঢাল শুভেচ্ছা এবং কৃতজ্ঞতা জানানো হয়।

সাপ্তাহিক

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s