অবৈধ ভাবে রাতের আধারে চলছে বাল্কহেড!

মুন্সীগঞ্জে পুলিশ প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ও নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে রাতের আধারে নদী পথে চলছে বালুবাহি বাল্কহেড। এতে করে মুন্সীগঞ্জ ধলেশ্বরী, মেঘনা, পদ্মা নদীতে প্রতিনিয়ত নৌ-দুর্ঘটনা ঘটছে অহরহ। এ দিকে বিগত কয়েক মাস ধরে ধলেশ্বরী ও মেঘনা নদীতে বাল্কহেডের ধাক্কায় লঞ্চ র্দুঘটনা ঘটেছে। গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বাল্কহেডের ধাক্কায় প্রাণে বেচে যায় ২’শতাধিক যাত্রী। এমন ঘটনা অহরহ ঘটছে ।কিন্তু প্রশাসনের উচ্চ প্রর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে আলাপ করে জানায়ায় সন্ধ্যার পরে বাল্কহেড ও বালুবাহি বাল্কহেড সম্পূর্ন চলাচল নিষিদ্ধ। লঞ্চ চলাচলের একমাত্র নদী পথের প্রধান সড়ক মুন্সীগঞ্জের ধলেশ্বরী ও মেঘনা। এ পথে প্রতিদিন অর্ধ লক্ষ মানুষ যাতায়াত করে আসছে।

লঞ্চ যাত্রী নাদিম মাহমুদ জানান, গত মাসে রাতে নারায়নগঞ্জ থেকে আসার সময় পিছন দিকে দিয়ে আমাদের লঞ্চে ধাক্কা দিলে ২জন গুরতর আহত হয়। এ সময় লঞ্চে আরো যাত্রী আহত হয়। এ অবস্থায় লঞ্চে চলাচল করতে আমাদের আতঙ্ক বিরাজ করে।

এ ব্যাপারে পাগলা কোস্টগার্ড এর লেফটেন্যান্ট মো: এনায়েত রহমান জানান, অভিযান চালানো হয় না এ কথা সঠিক নয়। গত কয়েক দিন আগেও অভিযান চালিয়েছি এবং জরিমানা করা হয়েছে। তবে আমার অভিমত অন্য রকম। তিনি আরো জানান, ভ্রাম্যামান আদালতের মাধ্যমে আমরা জরিমানা করতে পারি যা অর্থের তুলনায় অনেক কম। তিনি জানান, জেল ও টাকা পরিমান বেশী হলে বাল্কহেডে মালিকরা রাতে নদীতে নামতে সাহস হতনা।

এ দিকে নৌ-পুলিশ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল হাতেম জানান, আমাদের নৌ-পুলিশের ডিউটি থাকে বিকাল প্রর্যন্ত এবং আমাদের লোকবল কম। তার পরেও আমরা রাতের বেলায় অভিযানে নামি। আমরা উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে রাতে বাল্কহেড চলাচল না করতে পারে সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অপর দিকে মুন্সীগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম (পিপিএম) জানান, নদীর দায়িত্ব কোস্টগার্ড ও নৌ-পুলিশ এর। তাদের দায়িত্ব অবহেলার কারনে রাতে বাল্কহেড চলাচল করেছে । যার জন্য নদীতে নৌ দূর্ঘটনা ঘটছে।
তিনি জোর প্রতিশ্রুতি দেন কারো আসায় না থেকে এখন থেকে জেলা পুলিশ নদীতে থাকবে এবং যাতে নদীতে রাতে বেলায় বাল্কহেড চলাচল করতে না পারে। এ দিকে প্রতিবেদক এর প্রশ্ন জবাবে তিনি বলেন, পুলিশ প্রশাসনকে ম্যানেজ করে নদীতে বাল্কহেড চলাচল করেছে এ বিষয়ে আমার জানা নেই।

অন্য দিকে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা জানান, আমি গতকাল জানতে পাড়ি রাতে, বাল্কহেড চলাচল করেছে ও নৌ দূর্ঘটনা ঘটেছে। রাতের বেলাই মুন্সীগঞ্জে আর কোন বাল্কহেড চলাচল করতে দেওয়া হবে না। তিনি জানান, কয়েক দিনের মধ্য ভ্র্যাামান আদালত ঘনঘন অভিযান চালাবে। তিনি আরো জানান, পুলিশ সুপারের সাথে আমাদের সাথে কথা হয়েছে আমরা একত্রিত হয়ে অভিযানে নামবো এবং বাল্কহেড মালিকদের সাথে মতবিনিময় করা হবে।

বিডিলাইভ

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s